বাড়িতেই খুব সহজে তৈরি করে ফেলুন সুজি আর গাজরের এই দুর্দান্ত রেসিপি, টেস্ট হয় দারুন

নিজস্ব প্রতিবেদন : বাচ্চাদের স্কুলের টিফিন বা বিকেলের টিফিন বানাতে গিয়ে কিন্তু গৃহিণীদের বেশ হিমশিম খেতে হয়। প্রতিনিয়ত একঘেয়ে রান্না করতে গেলে অনেক সময় কিন্তু বাচ্চারা তা খেতে চায় না। তাই আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা এমন একটি রেসিপি আপনাদের সাথে শেয়ার করে নিতে চলেছি যা শিশু থেকে বয়স্ক সকলেরই কিন্তু অত্যন্ত পছন্দ হবে।

এই রেসিপিটি তৈরি করার জন্য আমাদের মূল উপকরণ হিসেবে গাজর এবং সুজি প্রয়োজন হবে। বর্তমানে সারা বছরেই কিন্তু গাজর বাজারে পাওয়া যায়। সুতরাং এই রেসিপিটি তৈরি করতে গিয়ে আপনাদের কোন রকম সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে না এ কথা আমরা স্পষ্ট বলতে পারি। চলুন তাহলে আর দেরি না করে কিভাবে এই রান্নাটি করা যাবে সেই প্রসঙ্গে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

এই রেসিপিটি তৈরি করার জন্য প্রথমেই আপনাদের বড় সাইজের বেশ কয়েকটি গাজর নিয়ে তা গ্রেটারে ভালো করে গ্রেট করে নিতে হবে। এবার গ্যাসে ফ্রাইং প্যান বসিয়ে তার মধ্যে সরাসরি এই গ্রেট করে রাখা গাজর গুলিকে দিয়ে দিন। এই সময় কিন্তু আপনাদের কোনরকম তেল বা ঘি ব্যবহার করার প্রয়োজন নেই। এবারে আপনাদের ওই গ্রেট করে নেওয়া গাজরের মধ্যে হাফ কাপ পরিমাণ জল দিয়ে দিতে হবে।

এবার দুই চিমটে নুন দিয়ে বেশ কিছুক্ষণ সময় ধরে আপনাদের গাজর নাড়াচাড়া করে নিতে হবে। ভালো করে সমস্ত উপকরণ মিশে যাওয়ার পর একে তিন থেকে চার মিনিট পর্যন্ত আপনারা ঢাকা দিয়ে রেখে দিন। এই তিন চার মিনিটের মধ্যেই দেখবেন সমস্ত জল শুকিয়ে গিয়েছে এবং গাজর আগের থেকে অনেকটাই নরম হয়ে গিয়েছে। গাজর যখন অনেকটাই নরম হয়ে যাবে তখন এতে স্বাদমতো চিনি মিশিয়ে দিন। আপনারা মিষ্টির পরিমাণ অনুযায়ী চিনি কমবেশি করে নিতে পারেন।

মিডিয়াম আঁচে যতক্ষণ পর্যন্ত না চিনি গলে যাচ্ছে আপনাদের আরো কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে নিতে হবে। এবার আরও দুই থেকে তিন মিনিট আপনাদের রান্নাটি ঢাকা দিয়ে রেখে দিতে হবে। এবার এতে সামান্য পরিমাণে ঘি এবং কর্নফ্লাওয়ার মিশ্রিত জল ছড়িয়ে দিন। ফলে খুব সুন্দর একটা টেস্ট আসবে। কিছুক্ষন নাড়াচাড়া করার পর ছড়িয়ে দিন বেশ কয়েকটি এলাচ।

এবারের কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করার পর গাজরের মিহি মিশ্রণটিকে একটি আলাদা পাত্রে তুলে রাখতে হবে। এবারের ওই ফ্রাইং প্যান এর মধ্যেই আপনাদের দিয়ে দিতে হবে এক কাপ পরিমাণের সুজি। এরপর সুজির মধ্যে দিয়ে দিন হাফ টেবিল চামচ পরিমাণ ঘি। একদম লো ফ্লেমে সুজিটাকে কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে নিতে হবে। খুব সামান্য নাড়াচাড়া করবেন যাতে সুজি কিন্তু লালচে না হয়ে যায়।

এবার সুজির এই মিশ্রণের মধ্যে আপনাদের দেড় কাপ পরিমাণ জল দিয়ে দিতে হবে। আপনারা যেরকম সুজি নিয়েছেন ঠিক তার দ্বিগুণ জল ব্যবহার করবেন। স্বাদমতো চিনি দিয়ে ভালো করে সুজি নাড়াচাড়া করতেই থাকতে হবে। সুজি সম্পূর্ণরূপে ঘন হয়ে গেলে এতে ছোট এলাচ গুঁড়ো এবং এক চিমটি নুন ছড়িয়ে দিন। এরপর সুজিকে আলাদা পাত্রে তুলে রেখে অনেকটা রুটি বেলার আগে যেরকম গোল গোল তৈরি করে নেন ঠিক সেরকম তৈরি করে নিন।। মাঝখানে গর্ত করে গাজরের পুরগুলিকে এরমধ্যে ভরে দিতে হবে।। তারপর সম্পূর্ণ সুজিটিকে মুড়িয়ে লাড্ডু তৈরি করে নিতে হবে আপনাদের।

সর্বশেষ ধাপে ফ্রাইং ফ্যান এর মধ্যে কিছুটা পরিমাণ দুধ দিয়ে তা গরম করে এতে চিনি মিশিয়ে দিন। কিছুক্ষণ দুধ নাড়াচাড়া করার পর এতে সামান্য আটা আর এলাচ গুলো মিশিয়ে ঘন করে মালাই তৈরি করে নিতে হবে। কিছুক্ষণ ফুটিয়ে নেওয়ার পরে সুজির তৈরি লাড্ডু গুলিকে এই মালাই এর মধ্যে দিয়ে উপর থেকে আরও কিছুটা মালাই ছড়িয়ে দিন।

ব্যাস তৈরি হয়ে গেল সুজি এবং গাজর দিয়ে তৈরি এক অসাধারণ ডেজার্ট রেসিপি। এটিকে আপনারা একদিকে যেমন বিকেলের জলখাবারে ব্যবহার করতে পারেন ঠিক তেমনভাবেই শেষ পাতে ডেজার্ট হিসেবে কিন্তু অসাধারণ লাগবে এই রেসিপি। আমাদের আজকের এই বিশেষ রান্নার টিপস আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই জানাতে ভুলবেন না। এই ধরনের আরো নিত্য নতুন রেসিপি সম্পর্কে জানতে চোখ রাখুন আমাদের পোর্টালে।

Back to top button