বাড়িতে খুব সহজ এই পদ্ধতিতে বানিয়ে ফেলুন রাবড়ি মালপোয়া, যার টেস্ট হয় দারুন ,রইলো স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি

নিজস্ব প্রতিবেদন : মালপোয়া খেতে কিন্তু কম বেশি অনেকেই ভালোবাসেন। নানান ধরনের জিনিস দিয়ে মালপোয়া তৈরি করা হয়ে থাকে। তবে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা রাজস্থানের একটি বিশেষ পদ্ধতিতে তৈরি মালপোয়ার রেসিপি আপনাদের সাথে শেয়ার করে নিতে চলেছি। এটি হলো রাবড়ি মালপোয়া। চলুন তাহলে আর দেরি না করে কিভাবে আপনারা এই মালপোয়া তৈরি করবেন তার স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি জেনে নেওয়া যাক।

রাবড়ি মালপোয়া তৈরীর প্রস্তুত প্রণালী:

এই মালপোয়া তৈরির জন্য প্রথমে আপনাদের এক প্যাকেট লিকুইড দুধ নিয়ে নিতে হবে। এবারে আপনাদের দুধ নিয়ে ভালো করে গরম করে নিতে হবে। যদি আপনারা বাজারে ফুল ক্রিম দুধ না পেয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে এই লিকুইড দুধ কিছুটা গরম হয়ে যাওয়ার পর এতে কয়েক চামচ গুঁড়ো দুধ মিশিয়ে দেবেন। এতে দুধ খুব সুন্দর হয়ে যাবে। যখন ফুটে উঠতে শুরু করবে তখন গ্যাসের আঁচ মিডিয়াম রেখে দেবেন। দুধ মোটামুটি অনেকটা ঘন হয়ে যাওয়ার পর এতে এলাচের গুঁড়ো আর সামান্য পরিমাণে চিনি মিশিয়ে দিতে হবে। আপনারা মিষ্টির পছন্দ অনুযায়ী চিনির পরিমাণ কম বেশি করতে পারেন।

এবার দুধের মিশ্রণটিকে ছাকনির সাহায্যে ছেঁকে নিয়ে সর গুলিকে আলাদা করে নিতে হবে। এবারে ওই দুধের মধ্যে ময়দা দিয়ে আপনাদের ব্যাটার তৈরি করে নিতে হবে। ময়দার সাথে আপনাদের দিয়ে দিতে হবে সুজি এবং চিনি। তবে সুজি দেওয়াটা কিন্তু একেবারেই অপশনাল। কিছুক্ষণ মিশ্রণ গুলিকে নাড়াচাড়া করে ব্যাটারটি ঢাকা দিয়ে রেখে দিন। এবার আপনাদের কড়াইতে চিনি দিয়ে তার মধ্যে জল মিশিয়ে চিনির শিরা তৈরি করে নিতে হবে মালপোয়ার জন্য। শিরা ফুটে উঠতে শুরু করলে এর মধ্যে আপনাদের কেশর মিশিয়ে দিতে হবে। চিনির শিরা তৈরি হয়ে যাবার পরে এটি কে আলাদা পাত্রে তুলে রেখে দিন।

এবার ফ্রাইং পানের মধ্যে কিছুটা তেল গরম করে নিয়ে তাতে ব্যাটারগুলিকে দিয়ে ভালো করে এপিঠ ওপিঠ ভেজে নিতে হবে। যতটা সম্ভব প্রতিটি ব্যাটারের মধ্যে কিন্তু কড়াইতে দূরত্ব রাখার চেষ্টা করবেন যাতে ভালোভাবে মালপোয়া গুলো তৈরি হতে পারে। মালপোয়া গুলো ভেজে নেওয়ার পর তা আপনাকে চিনির শিরার মধ্যে ডুবিয়ে দিতে হবে বেশ কিছুক্ষন। অসাধারণ স্বাদের রাবড়ি মালপোয়া তৈরি হয়ে গেল। বাড়িতে রেসিপিটি বানানোর পর কেমন খেতে লাগলো তা জানাতে কিন্তু অবশ্যই ভুলবেন না। এই ধরনের আরো রান্নার টিপস পেতে হলে আমাদের পরবর্তী প্রতিবেদন গুলির উপর নজর রাখতে থাকুন।

Back to top button