বাটা বাটির ঝামেলা ছাড়াই খুব সহজেই বানিয়ে ফেলুন রসুনের ভর্তা রেসিপি! খেতে হবে দারুন সুস্বাদু!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- দৈনন্দিন ব্যস্ততার মাঝেই একঘেয়ে রান্না খেতে খেতে কিন্তু আমাদের মুখ একেবারেই বিরক্ত হয়ে ওঠে। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কাজের চাপে হয়তো নতুন নতুন রান্না করার সময় হয়ে ওঠেনা। তবে আপনারা কি জানেন অল্প সময়ের মধ্যেই অনেক ছোটখাটো রান্না রয়েছে যা আপনাদের স্বাদে পরিবর্তন আনতে সাহায্য করতে পারে! আজকেও আমরা আপনাদের সাথে এরকম একটি রেসিপি শেয়ার করে নেব যা খুব অল্প সময়ের মধ্যে, অল্প উপকরণ দিয়ে আপনারা তৈরি করতে পারবেন।

এটি হলো রসুনের ভর্তার রেসিপি। গৃহিণী থেকে শুরু করে ব্যাচেলার সবার জন্যই আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদন। তাহলে চলুন দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক কিভাবে স্টেপ বাই স্টেপ সহজ উপায়ে আপনারা বাড়িতেই তৈরি করতে পারবেন রসুনের ভর্তা। রান্নাটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে প্রতিবেদনটি সম্পূর্ণ পরুন।

  • রসুনের ভর্তা বানানোর পদ্ধতি:
  • প্রথম ধাপ:

রসুনের ভর্তা তৈরি করার জন্য আপনাদের প্রথমেই পাঁচ থেকে ছটি বড় সাইজের রসুন নিয়ে নিতে হবে। আপনারা অবশ্যই বড় সাইজের রসুন নেওয়ার চেষ্টা করবেন তাতে কিন্তু ভর্তা খুবই ভালো হবে।

এরপর আপনাদের ভালো করে রসুনের খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। যদি আপনাদের খোসা ছাড়ানোর সময় কোন সমস্যা হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে একটি কৌটোর মধ্যে সমস্ত রসুন গুলিকে ভরে কিছুক্ষণ জোরে নাড়াচাড়া করতে থাকুন দেখবেন খোসাগুলি আপনিই অনেকটা আলাদা হয়ে গিয়েছে।

এরপরেও যদি দু একটি খোসা থেকে যায় তাহলে সেটা অবশ্যই হাত দিয়ে ছাড়িয়ে নেবেন। রসুনের খোসা ছাড়ানো হয়ে গেলে গ্যাসে একটি প্যান বসিয়ে আপনাদের এক চামচ পরিমাণ সরষের তেল দিয়ে দিতে হবে। তারপর এই তেলের মধ্যেই চার থেকে পাঁচটি শুকনো লঙ্কা দিয়ে ভালো করে ভেজে নিন। আপনারা আপনাদের পছন্দ অনুযায়ী কম বেশি ঝাল ব্যবহার করতে পারেন।

  • দ্বিতীয় ধাপ:

দ্বিতীয় ধাপে শুকনো লঙ্কা ভাজা হয়ে গেলে ওই একই ফ্যানের মধ্যে আরও এক চামচ সরষের তেল দিয়ে যে রসুন গুলি আপনারা খোসা ছাড়িয়ে রেখেছিলেন সেগুলিকে দিয়ে দিতে হবে। এরপর একটি ঢাকনা দিয়ে প্যানটিকে ঢেকে আপনাদের রসুনগুলো কে কিছুক্ষণ ভেজে নিতে হবে। এখানে আপনারা এমন ভাবে রসুনগুলোকে ভেবে নেবেন যাতে ভাজার সাথে সাথে এগুলো কিন্তু সেদ্ধ হয়ে যায়।

রসুন ভাজা হয়ে গেলে করাইতে আরও কিছুটা পরিমাণ তেল দিয়ে তাতে ১ টেবিল চামচ কালোজিরা দিয়ে দিন। সঙ্গে কিছুটা পরিমাণ পেঁয়াজ কুচি যোগ করে ভেজে নিতে হবে। ভাজার পরে যখন ধীরে ধীরে পেঁয়াজের রং বদল হতে শুরু করবে তখন এটাকে গ্যাস থেকে নামিয়ে নিন।

  • অন্তিম ধাপ:

এবার ভর্তা তৈরি করার জন্য শুকনো লঙ্কাগুলিকে নিয়ে তাতে সামান্য নুন দিয়ে ভেঙে নিন। এরপর আপনাদের নিয়ে নিতে হবে ভেজে রাখা পেঁয়াজ। তারপর ভেজে রাখা রসুনগুলোকেও এই উপকরণগুলির মধ্যে দিয়ে দিন। এবার হাতের সাহায্যে একটা একটা করে ভালো করে রসুনগুলোকে আপনাদের মেখে নিতে হবে।

তারপর রসুনের সাথে পেঁয়াজ এবং অন্যান্য উপকরণগুলিকে ভালো করে কিছুক্ষণ হাত দিয়ে মেখে নিলেই কিন্তু আপনাদের ভর্তা তৈরি হয়ে যাবে।

অসাধারণ এই রেসিপিটি আপনারা সহজেই গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করতে পারেন। এই রেসিপিটি ব্যবহার করে ভাত খেতে দিলেন নিমেষেই থালা সম্পূর্ণ সাফ হয়ে যাবে আমরা এ কথা স্পষ্ট বলতে পারি। এই ধরনের আরো রান্নার টিপস পেতে হলে অবশ্যই আমাদের পরবর্তী প্রতিবেদন গুলির উপর নজর রাখতে থাকুন এবং নিজেদের মূল্যবান মতামত আমাদের সাথে শেয়ার করে নিন।

Back to top button