ঘরে থাকা উপকরণ দিয়ে বানিয়ে ফেলুন ‘কাতলা মাছের’ ইউনিক রেসিপি, যার স্বাদ হয় দুর্দান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদন :বেশিরভাগ বাঙালি বাড়িতেই কিন্তু মাছের বিভিন্ন পদ প্রায় প্রতিদিনই রান্না হয়ে থাকে। তবে প্রতিনিয়ত একঘেয়ে ভাবে যে কোন রান্না খেতে কিন্তু কারোরই ভালো লাগেনা। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের জন্য তাই একটি কাতলা মাছের ইউনিক রেসিপি শেয়ার করতে চলেছি যা খুব সহজেই তৈরি করা যাবে এবং খেতে হবে লোভনীয় সুস্বাদু।

এই রেসিপি বানিয়ে কিন্তু আপনারা খুব সহজেই পরিবারের সদস্যদের মন জয় করে নিতে পারবেন। বাচ্চা থেকে বড় সকলেই কিন্তু একেবারে চেটেপুটে খেয়ে নেবে এটা এমন একটা রান্না।একঘেয়ে ধরনের মাছের ঝোল খেতে খেতে যদি বিরক্তি লেগে যায় তখন বানিয়ে নিতে পারে ‘দই কাতলা’। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক এবং জেনে নেওয়া যাক দই কাতলা তৈরি করার স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি।

  • দই কাতলা তৈরির বিশেষ রেসিপি:

উপকরণ : এই রান্নাটি করার জন্য আমাদের প্রথমেই কিন্তু নির্দিষ্ট কিছু উপকরণ একত্র করে নিতে হবে যাতে কাজ করার সময় কোন অসুবিধা না হয়।। উপকরণ গুলি হল—
১) কাতলা
২) তেল
৩) নুন
৪) হলুদ গুঁড়ো
৫) টক দই
৬) সাদা সরষে
৭) শুকনো লঙ্কা
৮) তেজপাতা
৯) ছোট এলাচ
১০) লবঙ্গ
১১) পেঁয়াজ
১২) আদা
১৩) রসুন
১৪) মৌরি
১৫)পোস্ত
১৬) কাজু এবং
১৭) জিরে গুঁড়ো

রন্ধন প্রণালী:

প্রথমেই আপনাকে নুন আর হলুদ মাখিয়ে মাছগুলিকে ম্যারিনেট করে নিতে হবে। তারপর গরম তেলে ভেজে এগুলিকে তুলে রেখে দিন। এবারে আপনাদের একটি পাত্রের মধ্যে কিছুক্ষণ মৌরি, পোস্ত, কাজু জলে ভিজিয়ে রেখে ভালো করে মিহি অবস্থায় বেটে নিতে হবে। তারপর আপনাদের কড়াইতে তেল গরম করে আবারও ফোড়ণ দিতে হবে।

ফোড়ণ হিসেবে আপনারা দিতে পারেন শুকনো লঙ্কা, তেজপাতা, ছোট এলাচ, লবঙ্গ । এবার আগে থেকে বেটে রাখা পেঁয়াজ কড়াইতে এই মিশ্রণের মধ্যে দিয়ে দিন। পেঁয়াজ ভাজা হয়ে গেলে একই রকম ভাবে আদার রসুন বাটা মিশিয়ে রান্নাটিকে ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে। তারপর আপনাদের এই মিশ্রণের মধ্যে দিয়ে দিতে হবে
মৌরি-পোস্ত-কাজুর বানিয়ে রাখা পেস্ট।

দ্বিতীয় ধাপে রান্নাটিকে বেশ কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে এর মধ্যে একে একে জিরে গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, স্বাদমতো নুন যোগ করে ভালো করে কষিয়ে নিন। কিছুক্ষণ পর দেখবেন ধীরে ধীরে মসলা থেকে তেল ছাড়তে শুরু করে দিয়েছে।তার ওপর দিয়ে ফেটানো টক দই দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। দই মসলার সাথে মিশে গেলে উপর দিয়ে জল দিয়ে খানিকক্ষণ ফোটাতে হবে।

তারপর ভেজে রাখা মাছগুলিকে এই মিশ্রণের মধ্যে আপনারা দিয়ে দিন। এই পর্যায়ে আপনাদের রান্নাটিকে পাঁচ থেকে সাত মিনিট সময় পর্যন্ত ভালো করে ঢাকা দিয়ে রেখে দিতে হবে। নির্দিষ্ট সময় পড়ে বেরেস্তা, কাঁচা লঙ্কা ও ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে গরম গরম দই কাতলা নামিয়ে ফেলুন। দুপুরের খাবার হিসেবে গরম গরম ধোঁয়া ওঠা ভাতের সাথে আপনারা এই রেসিপি কিন্তু সহজেই পরিবেশন করতে পারেন।

Back to top button