অভিনয় ছেড়ে ভাজলেন ৬০টা লুচি! লক্ষ্মীপুজোয় স্বামী নীলের পছন্দের ভোগ রেঁধে আপ্লুত তৃণা, প্রশংসা নেটিজেনদের

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাংলা টেলিভিশন জগতের জনপ্রিয় দুই মুখ হলেন তৃণা সাহা এবং নীল ভট্টাচার্য। তবে আশ্চর্যের ব্যাপার হল টেলিভিশনের পর্দায় কখনো একসঙ্গে জুটি বাঁধতে না দেখা গেলেও বাস্তব জীবনে কিন্তু একসঙ্গে জীবন কাটানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন এই তারকারা। গত বছর অর্থাৎ 2021 সালে ফেব্রুয়ারি মাসে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন নীল এবং তৃনা। হাজারো কাজের ব্যস্ততার ফাঁকেই সোশ্যাল মিডিয়াতে কিন্তু প্রায় সময় তাদের একসঙ্গে বিভিন্ন ছবি ঘোরাফেরা করতে দেখা যায়।

শুধু তাই নয়, নিয়মিত বিভিন্ন ভিডিও শেয়ার করে থাকেন তারা। পূজো থেকে শুরু করে যে কোন অনুষ্ঠান একসঙ্গে এই কাটাতে পছন্দ করেন এই তারকা দম্পতি। সম্প্রতি দুর্গা পূজা এবং লক্ষ্মীপূজো দুটোই বেরিয়ে গিয়েছে। প্রত্যেক বাঙালি বাড়ির মতন নীল আর তৃনার বাড়িতেও কোজাগরী লক্ষ্মীপুজোর আয়োজন করা হয়েছিল। সেই উপলক্ষে সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ কিছু ছবি ভাইরাল হয়ে উঠে এসেছে।

তারকা হওয়ার সুবাদে সোশ্যাল মিডিয়ায় কিন্তু ভক্ত সংখ্যা কম নয় দুজনেরই। নীল ভট্টাচার্য বা তৃণা সাহা যাই শেয়ার করুন না কেন মুহূর্তেই তা ভাইরাল হয়ে ওঠে নেট মাধ্যমে। ঠিক যেমনভাবে সম্প্রতি তাদের লক্ষ্মীপুজোর ছবিগুলি ভাইরাল হয়ে উঠে এসেছে। এখানে দুজনের মধ্যে বন্ডিং আর ভালোবাসা দেখে রীতিমতন অবাক হয়ে গিয়েছেন সকলেই। তাদের বিয়ের পর এটি তাদের দ্বিতীয় বছরের লক্ষ্মীপূজো।

একটি সংবাদ মাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী বলেন, যে তার শ্বশুরবাড়ির পুজো সকালে সেরে তারপরে বিকেল বেলায় বাপের বাড়ির লক্ষ্মীপুজোতে যাবেন। পাশাপাশি অভিনেত্রী এটাও জানান যে দুই বাড়ির লক্ষ্মীপূজো কিন্তু একেবারেই আলাদা। নীল ভট্টাচার্যের বাড়িতে আসলে লক্ষ্মীপূজো করা হয় নারায়ণের সঙ্গে। ভোগ হিসেবে তৃণার শ্বশুরবাড়িতে দেওয়া হয়,লুচি, তরকারি, চাটনি প্রভৃতি। অন্যদিকে অভিনেত্রীর বাপের বাড়িতে লক্ষ্মীপুজোর ভোগ হিসেবে খিচুড়ি পরিবেশন করা হয়ে থাকে।

প্রসঙ্গত অভিনেত্রী হওয়ার কারণে সারা বছর যতই ছোট পোশাক পড়ুক না কেন লক্ষ্মীপুজোর দিন কিন্তু একেবারে ঘরোয়া লক্ষ্মীর মতন নীল রঙের একটি শাড়িতে ধরা দিয়েছিলেন তৃনা। এদিন অভিনেতা নীল ভট্টাচার্য ও সেজেছিলেন একটি সাদা আর নীল রঙের মিশেলের পাঞ্জাবিতে। একা হাতে সমস্ত ভোগ রান্না করতে দেখা যায় তৃণা সাহাকে। জানা যায় এটি নীলের পছন্দের ভোগ। ঠাকুরের বেদি সাজানো থেকে শুরু করে ভোগ রান্না, আলপনা দেওয়া তারপরে অঞ্জলি দেওয়া সবকিছুই করেছেন অভিনেত্রী, সেই সঙ্গে অভিনেতার মায়ের সঙ্গ দিয়েছেন।

এইসব শুনে নেটিজেনরা প্রশংসা করেছেন অভিনেত্রীর। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের বাড়ির লক্ষ্মীপুজোর ছবিগুলি ভাইরাল হতেই রীতিমত প্রশংসায় ভরিয়ে তুলেছেন নেটিজেনরা। এই প্রসঙ্গে আপনাদের কি মতামত তা আমাদের সঙ্গে আপনারা সহজেই কমেন্ট বক্সে শেয়ার করে নিতে পারেন।।

Back to top button