রান্নাঘরের সিঙ্ক, বেসিন ও জলের কলে জমে থাকা কঠিন দাগ দূর করার রইলো দুর্দান্ত ঘরোয়া টিপস!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- রান্নাঘরের বেসিন, সিঙ্ক থেকে শুরু করে বাথরুমের ট্যাপ এগুলি কিন্তু খুব অল্প সময়ের মধ্যেই নোংরা হয়ে পড়ে। সাধারণত দীর্ঘ সময় ধরে জলে থাকা আইরনের কারণে এবং অন্যান্য বিভিন্ন পদার্থের ব্যবহারে খুব সহজেই এই নোংরা বসে যায় এবং একপ্রকার জেদি দাগ তৈরি করে। সাধারণত বাজার চলতি অনেক জিনিস যেমন হারপিক বা ডিটারজেন্ট দিয়ে এগুলি পরিষ্কার করার চেষ্টা করে থাকেন অনেকে।

তবে শুরুতেই জানিয়ে রাখি, যদি আপনারা এই সমস্ত জিনিস দিয়ে বাথরুম বা রান্নাঘরের বেসিন, ট্যাপ ইত্যাদি পরিষ্কার করার চেষ্টা চালান তাহলে কিন্তু এগুলির রং খুব তাড়াতাড়ি উঠে যাবে এবং দৃষ্টিকটু হয়ে পড়বে। সুতরাং অবশ্যই আপনাকে কিন্তু এই জিনিসগুলি পরিষ্কার করার জন্য একটা সঠিক পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা গৃহিণীদের জন্য এমন একটি টিপস শেয়ার করে নিতে চলেছি যার সাহায্যে খুব সহজেই কিন্তু বেসিন সিঙ্ক বা ট্যাপ পরিষ্কার করে নেওয়া যাবে।

  • রান্নাঘরের সিঙ্ক অথবা বেসিন এবং বাথরুমের ট্যাপ পরিষ্কার করার পদ্ধতি:

১) যে পদ্ধতিতে আপনারা খুব সহজেই রান্নাঘরের সিঙ্ক অথবা বেসিন এবং পাশাপাশি বাথরুমের ট্যাপ পরিষ্কার করে নিতে পারবেন সেটি এখানে আমরা ভালো করে আলোচনা করতে চলেছি। এর জন্য আপনাকে প্রথমেই টুথপেস্ট আর হোয়াইট ভিনিগার দিয়ে একটা দ্রবণ তৈরি করে নিতে হবে। যেটাকে একটি পুরনো টুথব্রাশের সাহায্যে ভালো করে সিঙ্ক, বেসিন অথবা ট্যাপের গায়ে আপনারা ঘষতে থাকুন।

মোটামুটি মিনিট পাঁচেক সময় আলতো ভাবে যদি আপনারা কোন স্ক্রাবার বা পুরনো টুথব্রাশের সাহায্যে এই কাজ করতে পারেন তাহলেই কিন্তু দেখবেন এটি একেবারে নতুন চকচকে হয়ে পড়েছে। যত দিনেরই যদি দাগ হোক না কেন তা কিন্তু আর থাকবে না। অত্যন্ত সহজ একটা উপায় এবং আপনাদের বেশি কোন অর্থ খরচ করতে হবে না। সুতরাং বাড়িতে আপনারা অবশ্যই এটা কিন্তু ট্রাই করে দেখবেন। এবারে বিশেষ কিছু জিনিস জেনে নেওয়া যাক।

২) দীর্ঘ সময় ধরে বেসিন পরিষ্কার না করলে কিন্তু দুর্গন্ধ এবং জীবাণু সংক্রান্ত সমস্যায় অসুবিধা হতে পারে। বেসিনে ন্যাপথলিন ব্যবহার করুন, দুর্গন্ধ এড়ানো যায়। দিনের শেষে বেসিনের মধ্যে গরম জল ঢেলে দিলে পাইপের মধ্যে থাকা জীবাণু মরে যায়। মাঝেমধ্যে বেসিনে লবণ ছড়িয়ে রাখতে পারেন। এতেও জীবাণু প্রতিরোধ সম্ভব। বেসিনের কল কিন্তু আপনারা প্রয়োজন ছাড়া বন্ধ রাখার চেষ্টা করবেন কারণ ক্রমাগত জল পড়তে থাকলে স্বাভাবিকভাবেই বেশি দাগ তৈরি হবে।

৩) অনেকেই কিন্তু বেসিন পরিষ্কার করার কাজে লিকুইড বা গুড়ো সাবান ব্যবহার করে থাকেন। এই কাজটা করা কিন্তু একেবারেই উচিত নয়। সিরামিকের বেসিনে অ্যাসিড বা কড়া সাবান ব্যবহার করবেন না। লিক্যুইড বা গুঁড়া সাবান দিয়ে পরিষ্কার করুন।

স্বচ্ছ কাচের বেশিন হয়ে থাকলে সেক্ষেত্রে আপনারা শুধু জল আর ভিনেগার ব্যবহার করলেই কাজ হয়ে যাবে। তবে অবশ্যই সেক্ষেত্রে বেসিন পরিষ্কার করার পর কিন্তু শুকনো কাপড় দিয়ে ভালো করে মুছে নিতে ভুলবেন না। বেসিন পরিষ্কার করার পাশাপাশি আপনাদের এই সম্পর্কিত কয়েকটি টিপস দিয়ে রাখলাম আশা করি কাজে লাগবে।

Back to top button