স্টিলের বাসনের কঠিন পোড়া দাগ কয়েক মিনিটেই হবে উধাও! ট্রাই করুন এই দুর্দান্ত ঘরোয়া টিপস

নিজস্ব প্রতিবেদন: দৈনন্দিন ব্যস্ততার চাপে রান্নাবান্না করতে গিয়ে বাসনপত্র পড়ে যাওয়া কিন্তু একেবারে রোজগার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। কমবেশি কিন্তু আমাদের প্রত্যেকের বাড়িতেই এই ঘটনা একবার না একবার হয়ে গিয়েছে। বাজার চলতে বিভিন্ন উপকরণের সাহায্যে খুব সহজেই এই সমস্ত পোড়া বাসন পরিষ্কার করা যেতে পারে। তবে সেটা কিন্তু অত্যন্ত সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। অনেক সময় ঘন্টার পর ঘন্টা বাসন পরিস্কার করতে থাকলেও দেখা যায় কোনভাবেই কিন্তু পোড়া দাগ ওঠে না।

তাহলে করণীয় কি? এভাবে দীর্ঘক্ষণ পড়া বাসন ফেলে রাখলে তা আরও দাগযুক্ত হয়ে পড়বে তাতে কোন সন্দেহ নেই। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে দৈনন্দিন এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আমরা নিয়ে চলে এসেছি বিশেষ টিপস, যা অত্যন্ত কার্যকরী। আপনারা যারা নিত্য বাসনপত্র পুড়ে যাওয়ার সমস্যার ভুক্তভোগী তারা অবশ্যই কিন্তু এই প্রতিবেদনটি একেবারে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়বেন এবং নিজেদের মতামত কমেন্ট বক্সে শেয়ার করে নেবেন।।

বাসনপত্রের পোড়া দাগ তোলার প্রয়োজনীয় উপকরণ :

১) বেকিং সোডা এক চামচ
২) ডিশ ওয়াশ হাফ চামচ
৩) জল এক গ্লাস

পোড়া দাগ দূর করার উপায়:

যে বাসন আপনাদের পুড়ে গিয়েছে তার মধ্যে কিছুটা পরিমাণে জল ভরে রেখে দিতে হবে। অন্ততপক্ষে যতটা জায়গা পর্যন্ত পোড়া দাগ রয়েছে সেই পুরো অংশটাই কিন্তু আপনাদের জল ভর্তি রাখতে হবে। তারপর সেই পাত্রটি কে গ্যাসে বসিয়ে দিতে হবে আপনাদের। গ্যাসের ফ্লেম একেবারে নিচের দিকে রাখবেন। এবারে এই জলের মধ্যে আপনাদের দিয়ে দিতে হবে বেকিং সোডা,আর হাফ চামচ ডিশ ওয়াশ।

মোটামুটি পাঁচ মিনিট সময় পর্যন্ত এভাবে আপনাদের জল ফুটিয়ে নিতে হবে। এরপর গ্যাস বন্ধ করে দিন। বেকিং সোডা আর ডিশওয়াশ এর সাথে গরম জলের বিক্রিয়া হওয়ার কারণে যখন আপনারা পাত্র থেকে জল ফেলে দেবেন এরপর তখন দেখবেন অর্ধেক পড়া অংশ কিন্তু এর সাথেই বেরিয়ে চলে আসছে। তারপরেও যদি বাটির মধ্যে কোন রকমের পোড়া দাগ থেকে যায় সেক্ষেত্রে একটা  চামচের সাহায্যে এবার যে জায়গাগুলিতে পোড়া দাগ রয়েছে সেখানে আলতো করে ঘষতে থাকুন।

খুব বেশিও কিন্তু ঘষার প্রয়োজন নেই। অল্পতেই কাজ হয়ে যাবে। ব্যস সমস্ত পোড়া দাগ তোলা হয়ে গেলে সবশেষে কিছুটা পরিমাণ বাসন মাজার ডিসওয়াশ দিয়ে ভালো করে বাটি মেজে জল দিয়ে ধুয়ে নিন। পার্থক্য আপনারা নিজেরাই বুঝতে পারবেন। এই পদ্ধতিতে যেমন আপনাদের খাটনি কম হবে ঠিক তেমনভাবেই কিন্তু বাসন একেবারে নতুনের মতন চকচক করে উঠবে।

Leave a Comment