মাত্র ৩০ টাকায় পেয়ে যান দারুণ ডিজাইনের শাড়ি, এখন থেকে কিনে শুরু করুন ব্যবসা, অল্পদিনেই লাভ হবে দ্বিগুণ

নিজস্ব প্রতিবেদন: যেকোনো নতুন ব্যবসা শুরু করার সময় যে কয়েকটি বিষয় সবার প্রথমেই ব্যবসায়ীদের মাথায় রাখতে হয় তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো মূলধন আর বাজার চাহিদা। লক্ষ্য করে দেখবেন মূলধন আর বাজার চাহিদা যদি আপনারা ঠিকঠাক না রাখতে পারেন সে ক্ষেত্রে কিন্তু কোন ব্যবসায়ী চট করে দাঁড় করানো সম্ভব নয়। স্বল্প বিনিয়োগ এর মাধ্যমে এমন কোন ব্যবসা যদি শুরু করা যেতে পারে যার বাজার চাহিদা শেষ নেই তাহলে কিন্তু আর আপনাকে সারা জীবনের জন্য চিন্তা করতে হবে না।

একটা সময় ছিল যখন সাধারণ মানুষ ব্যবসার থেকে বেশি চাকরি-বাকরির উপর নির্ভরশীল থাকতে পছন্দ করতেন। তবে এখন যেহেতু আর আগেকার মতন পরিস্থিতি নিয়েই তাই সকলেই কিন্তু ব্যবসার দিকে ঝুঁকে চলেছেন। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে তাই আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করে নিতে চলেছি এমন একটি ব্যবসার আইডিয়ার কথা যা খুব সহজেই আপনার ভাগ্য পরিবর্তন করে দিতে পারে। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক। চাইলে আপনারা সঙ্গে থাকা ভিডিওটিও দেখে নিতে পারেন।

কি ধরনের ব্যবসা শুরু করবেন এবং কিভাবে?

আজকে আমরা বলবো একেবারে পাইকারি দরে শাড়ি কিনে তা লোকাল মার্কেটে বিক্রির ব্যবসার কথা। স্থানীয় বাজারে মহিলাদের ক্ষেত্রে যে কোন অনুষ্ঠানে শাড়ির চাহিদার কথা আপনাদের সকলেরই জানা রয়েছে। যেকোনো অনুষ্ঠান থেকে শুরু করে বিয়ে বাড়ি সব সময়ই কিন্তু এই শাড়ির প্রয়োজন হয়ে থাকে।

শাড়িকে ভারতীয় সংস্কৃতির অন্যতম অঙ্গ বলে মনে করা হয়ে থাকে। দেশ থেকে শুরু করে বিদেশেও এর চাহিদা রয়েছে। তাই যদি আপনারা এই ব্যবসা শুরু করেন তাহলে বাজার চাহিদা নিয়ে আপনাদের কখনোই কোনো চিন্তা করতে হবে না। পাইকারি দরে শাড়ি কেনার পরে আপনারা তা লোকাল মার্কেটে বেশ ভালো দাম রেখে বিক্রি করতে পারবেন।

আমরা আপনাদের এমন একটি পাইকারি দোকানের কথা জানাবো যেখান থেকে বস্তা বস্তা শাড়ি আপনারা হোলসেল রেটে কিনতে পারবেন। দাম এখানে এতটাই কম যে বিক্রির পর আপনাদের লাভ নিয়ে কোন রকমের চিন্তাই করতে হবে না।। শান্তিপুরে অবস্থিত এই দোকানটিতে আপনারা ছাপার শাড়ি পেয়ে যাবেন মাত্র ১০০ টাকার মধ্যে। এছাড়াও আপনারা জামদানি পাবেন ৫০০ টাকা, মলমলের শাড়ি পাবেন ২৫০ থেকে ২৭০ টাকা, হ্যান্ডলুম শাড়ি পাবেন ২০০ টাকা থেকে শুরু করে আরো বিভিন্ন দাম আর ডিজাইনের মধ্যে।

এই শাড়ির ব্যবসা করার জন্য কিন্তু আপনার খুব বেশি মূলধনের প্রয়োজন পড়বে না। অনলাইন এবং অফলাইন দু’রকম ভাবে আপনারা ব্যবসা চালিয়ে যেতে পারবেন। যদি বাজারের ভালো অবস্থানে আপনার দোকান থাকে সেক্ষেত্রে বিক্রি নিয়ে কোন সমস্যাই হার হবে না। এবার চলুন আর সময় নষ্ট না করে আপনাদের দোকানের ঠিকানা এবং অন্যান্য বিস্তারিত তথ্য দিয়ে দেওয়া যাক।

পাইকারি দরে শাড়ি কেনার সুযোগ্য ঠিকানা:

যারা ব্যবসা শুরু করতে চান তাদের জন্য এখানে বিস্তারিত তথ্য দেওয়া হল। শান্তিপুরে অবস্থিত এই দোকানটির নাম লোকনাথ শাড়ি সেন্টার।যদি আপনারা হাওড়া থেকে এই দোকানে আসতে চান সেক্ষেত্রে হাওড়া টু কাটোয়া লোকালে চেপে গুপ্তিপাড়ায় নামতে হবে। শিয়ালদা থেকে আসতে হলে শিয়ালদহ থেকে শান্তিপুর লোকালে চেপে লাস্ট স্টপেজ শান্তিপুরে নেমে সেখান থেকে টোটো করে নেমে নিচে যেতে হবে।

Prop : somnath Roy /Gopal Roy/pappu Roy. Contact : 8918773796/9134171276/7679814925
Whatsapp : 9851313734/8906142021.

Back to top button