ব্যর্থ হল বয়কটের ডাক! রিলিজের পর ক্রমশ নজির গড়ার মুখে ব্রহ্মাস্ত্র, জানেন কত কোটি টাকা করলো আয়?

নিজস্ব প্রতিবেদন: চলতি বছরে অন্যান্য বেশ কিছু চলচ্চিত্রকে পিছনে ফেলে দিয়ে বয়কট বলিউড ট্রেন্ডের মধ্যেই বেশ ভালো ফলাফল করেছে রণবীর কাপুর আর আলিয়া ভাটের ব্রহ্মাস্ত্র। মুক্তির দ্বিতীয় শুক্রবারের মধ্যেই ব্রহ্মাস্ত্রের ফলাফল দেখে বেশ খুশি হয়ে উঠেছেন নির্মাতারা। প্রসঙ্গত চলতি বছরে একের পর এক বিগ বাজেটের বলিউড ছবি, বক্স অফিসে মুখ থুবরে পড়ায় রণবীরের এই ছবিটি নিয়ে কিন্তু বেশ চিন্তা ছিল একাংশের।

অনেকেই মনে করেছিলেন যদি এই ছবিটি বক্স অফিসে সাফল্য অর্জন না করতে পারে সেক্ষেত্রে পুজোর আগেই বড়সড়ো বিপর্যয় নেমে আসবে বলিউডে। তবে দর্শকদের এবং নির্মাতাদের সেই আশা পূরণ করেছে ব্রহ্মাস্ত্র। কিছু কিছু জায়গায় অডিয়েন্স এর রিভিউ সঠিক না আসলেও ছবিটি কিন্তু মাত্রাতিরিক্ত সফলতা লাভ করেছে সপ্তাহ দুয়েকের মধ্যেই। পাঠকদের উদ্দেশ্যে জানিয়ে রাখি, দ্বিতীয় সপ্তাহে প্রায় ৫৪ কোটি রুপি আয়ের মাধ্যমে সিনেমাটির সম্ভাব্য টার্গেট ২৭৫ কোটি রুপিতে পৌঁছেছে।

দ্বিতীয় সপ্তাহে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ সিনেমার অর্জিত ৫৫ কোটির মধ্যে দ্বিতীয় সপ্তাহান্তে সিনেমাটির আয়ের পরিমাণ ছিলো ৪০ কোটি রুপি আর সপ্তাহের বাকী দিনগুলোতে সিনেমাটির আয়ের পরিমাণ ছিলো ১৪ কোটি রুপি। ইতিমধ্যে বক্স অফিসে কাঙ্ক্ষিত ২০০ কোটি রুপির মাইলফলক ছাড়িয়ে গেছে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ সিনেমাটি। আর দ্বিতীয় সপ্তাহ শেষে সিনেমাটির মোট বক্স অফিস আয়ে দাঁড়িয়েছেন ২১৫ কোটি রুপি।

প্রথমদিকে সিনেমাটির সাফল্য নিয়ে কিছু জল্পনা কল্পনা থাকলেও দ্বিতীয় সপ্তাহের শেষের দিকের মধ্যেই এটি বলিউডে নিজের ভিত শক্তভাবে প্রতিষ্ঠা করেছে । বিশেষজ্ঞদের একাংশ মনে করছেন সঠিকভাবে যদি চলে সেক্ষেত্রে কিন্তু আর কয়েক দিনের মধ্যেই বেশ কয়েকটি সুপারহিট চলচ্চিত্র কে পেছনে ফেলে দেবে অয়ন মুখার্জির এই ব্রহ্মাস্ত্র।এই মাইলস্টোন অর্জনের মাধ্যমে সিনেমাটি পিছনে ফেলে দিবে ‘উরি – দ্য সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ (২৪৫.৩৬ কোটি রুপি), কৃষ ৩ (২৪৪.৯২ কোটি রুপি), সিম্বা (২৪০.৩১ কোটি রুপি) এবং ‘কিক’ (২৫৩ কোটি রুপি) এরমত ব্লকবাস্টার সিনেমাগুলোকে।

এছাড়া শীগ্রই সিনেমা ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ সিনেমাকে পিছনে ফেলে চলতি বছরের সর্বোচ্চ আয়ের সিনেমা হতে যাচ্ছে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’। সবথেকে লক্ষণীয় ব্যাপার এত বিতর্ক,এত প্রতিযোগিতার মধ্যে দাঁড়িয়েও যেভাবে এই সিনেমাটি সফলতা অর্জন করেছে তা নেটিজেনদের নজর কেড়ে নিয়েছে।

হিন্দি ছাড়াও আরো বেশ কয়েকটি ভাষায় কিন্তু মুক্তি পেয়েছিল ব্রহ্মাস্ত্র। তামিল, তেলেগু, কন্নড় এবং মালায়ালাম ভাষায় এই সিনেমাটি পরিবেশনার দায়িত্বে ছিলেন তেলেগু সিনেমার স্বপ্নবাজ নির্মাতা এস এস রাজামৌলি। জানিয়ে রাখি সিনেমাটি বিশ্বব্যাপী প্রায় ৯০০০ স্ক্রিনে মুক্তি পেয়েছে। এরমধ্যে সিনেমাটি পাঁচ হাজারের বেশি স্ক্রিনে প্রদর্শিত হচ্ছে। সিনেমাটি নির্মাণ করতে প্রায় ৪১০ কোটি রুপি খরচ করেছেন নির্মাতারা।

অগ্রিম টিকিট বিক্রির নিরিখে কিন্তু অনেক ছবিকে পেছনে ফেলে দিয়েছিল ব্রহ্মাস্ত্র। যদিও প্রথমে মুভি রিভিউ নিয়ে নির্মাতাদের বেশ সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়েছিল। দর্শকদের একাংশ জানিয়েছিলেন যে, সিনেমায় ভিএফএক্স এর কাজ দারুনভাবে থাকলেও মূল গল্প কিন্তু অনেকটাই খাপছাড়া হয়ে গিয়েছে।

ভারতের মাল্টিপ্লেক্স উৎসবের কারনে তৃতীয় সপ্তাহের প্রথম দিন সিনেমাটির অগ্রিম টিকেট বিক্রি ছিলো রেকর্ড পরিমাণ। মাত্র ৭৫ রুপিতে মাল্টিপ্লেক্সে সিনেমা দেখার সুযোগ শতভাগ কাজে লাগাচ্ছেন দর্শকরা। আর এর সবচেয়ে বড় সুবিধা নিচ্ছে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ সিনেমাটি। বক্স অফিস প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে মুক্তির তৃতীয় শুক্রবার সিনেমাটি দেখতে মাল্টিপ্লেক্সে ৮০%-৯০% দর্শক সমাগম হয়েছে। টিকেটের মূল্য কম হওয়ার কারনে নতুন মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমার চেয়ে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’র প্রতি দর্শকদের আগ্রহ বেশী দেখা যাচ্ছে।

সিনেমাটির এখন পর্যন্ত বক্স অফিসে ধারা অনুযায়ী তৃতীয় সপ্তাহে ২২-২৩ কোটি রুপি খুবই সহজ টার্গেট ছিলো। তবে শুক্রবার সিনেমাটি দেখতে দুর্দান্ত দর্শক সমাগমের কারনে স্বাভাবিকের চেয়ে তৃতীয় সপ্তাহে বেশী আয় করবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে উল্টোটা হওয়ারও সম্ভাবনা রয়েছে। কারন মাল্টিপ্লেক্সে শুক্রবার বেশী সংখ্যক দর্শক সমাগমের কারনে তৃতীয় সপ্তাহান্তের বেশীরভাগ দর্শক সিনেমাটি উপভোগ করে ফেলবেন, যা বাকী দুই দিনের আয়ের প্রভাব ফেলবে। তবে ইতিমধ্যে সিনেমাটির সম্ভাব্য টার্গেট ২৭৫ কোটি রুপি বলে ধারনা করছেন ট্রেড বিশেষজ্ঞরা।

সবশেষে জানিয়ে রাখি,অয়ন মুখার্জির ‘অস্ত্রভার্স’ ট্রিলজির প্রথম সিনেমা ‘ব্রহ্মাস্ত্র – পার্ট ১: শিবা’। সিনেমাটিতে রণবীর কাপুর এবং আলিয়া ভাট ছাড়া আরো অভিনয় করেছেন অমিতাভ বচ্চন, নাগার্জুনা এবং মৌনি রায়। এছাড়া সিনেমাটিতে একটি বিশেষ চরিত্রে আছেন বলিউড বাদশা শাহরুখ খান। সিনেমাটিতে মৌনি রায় প্রধান খলচরিত্রে অভিনয় করছেন। অন্যদিকে শাহরুখ খানকে দেখা গেছে একজন বিজ্ঞানী চরিত্রে।

মৌনি রায় কূটকৌশলের আশ্রয় নিয়ে শাহরুখ খানের কাছ থেকে ব্রহ্মাস্ত্র ছিনিয়ে নিয়ে যায়। আর সেখান থেকেই শুরু হয়ে শিবের যাত্রা। ইতিমধ্যেই ছবিতে শাহরুখ খানের চরিত্রটিকে নিয়ে আরো একটি গল্প নির্মাণের কথা জানিয়েছেন অয়ন মুখার্জি।। প্রধানত সিনেমা দেখার পর ভক্তদের অনুরোধেই এই ঘোষণা করেন অয়ন।

সিনেমাটির পিছনে নিজের জীবনের দীর্ঘ দশ বছর খরচ করেছেন বলিউডের স্বপ্নবাজ নির্মাতা অয়ন মুখার্জি। তাই স্বাভাবিকভাবেই এটির পিছনে তিনি তার সমস্ত পরিশ্রম দেবেন এ কথা আমরা আশা রাখতেই পারি। শেষপর্যন্ত ব্রহ্মাস্ত্রের ফলাফল আর কত দূর পর্যন্ত গড়ায় এখন এটা দেখতেই উৎসুক দর্শকেরা।

Back to top button