রঞ্জিতের ওপর চরম অভিমান! এবার মিডিয়ার সামনেই বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ কোয়েলের

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাংলা চলচ্চিত্র জগতের দুজন অন্যতম তারকা হলেন অভিনেতা রঞ্জিত মল্লিক এবং তার কন্যা কোয়েল মল্লিক। একটা সময় ইন্ডাস্ট্রিতে চুটিয়ে কাজ করেছেন রঞ্জিত মল্লিক। ১৯৭১ সালে ইন্টারভিউ ছবির মাধ্যমে নিজের অভিনয় জীবনের যাত্রা শুরু করেছিলেন রঞ্জিতবাবু। এরপর আর তাকে কখনো পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। অ্যাকশন,কমেডি থেকে শুরু করে রোমান্টিক প্রায় সব ধরনের চরিত্রই কিন্তু দেখা গিয়েছে তাকে।

সেইসময় ইন্ডাস্ট্রির একজন অত্যন্ত চাহিদা সম্পন্ন অভিনেতাদের মধ্যে তিনি ছিলেন একজন। বর্তমানে 78 বছর বয়সী এই অভিনেতা অভিনয়ের থেকে অনেকটা দূরে থাকলেও তার মেয়ে কোয়েল কিন্তু এখনো ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করে চলেছেন। প্রসঙ্গত বাবার পদাঙ্ক অনুসরণ করে অভিনয় জগতেই পা রেখেছিলেন তার মেয়ে কোয়েল। ২০০৩ সালে জিতের বিপরীতে নাটের গুরু ছবির মাধ্যমে কোয়েল এর অভিনয়ের জীবন শুরু হয়েছিল। এরপর বিগত ১৯ বছর ধরেই ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন নায়িকা।

রঞ্জিত মল্লিক এবং কোয়েল অর্থাৎ বাবা আর মেয়ের সম্পর্ক নিয়ে হয়তো কম বেশি আপনারা নানান ধরনের গল্প শুনে থাকবেন। অনেক ছবিতেই কিন্তু একসঙ্গে কাজ করেছেন তারা। তবে বাবা মেয়ের জুটি হিসেবে শুধুমাত্র অনস্ক্রিন নয় বাস্তব জীবনেও কিন্তু তাদের মধ্যে দারুন সম্পর্ক রয়েছে। সত্যি কথা বলতে গেলে মেয়ে কোয়েল মল্লিকের বন্ধু রঞ্জিত।

এবার তাই ঠিক একজন বন্ধুর মতই বাবার উপরে অভিমান করতে দেখা গেল কোয়েলকে। কয়েকদিন আগেই পেরিয়ে গিয়েছে বাঙালির বহু প্রতীক্ষিত উৎসব দুর্গাপুজো। কম বেশি সকলেই জানেন কলকাতার সাবেকি পুজো গুলির মধ্যে অন্যতম হলো মল্লিক বাড়ির দুর্গা পুজো। মল্লিক বাড়ি বলতে আমরা বলতে চাইছি রঞ্জিত মল্লিকের পৈত্রিক বাড়ির কথা।

প্রত্যেক বছরই মল্লিক বাড়িতে ধুমধাম সহকারে পূজোর আয়োজন করা হয়ে থাকে। এই সময় বাড়ির সদস্যরা যে যেখানেই থাকুন না কেন মল্লিক বাড়িতে এসে উপস্থিত হন এবং পুজোর চার দিন জমিয়ে আনন্দ করেন। বিয়ে হয়ে গেলেও নিয়মিত বাড়ির পূজোয় কিন্তু ঘরের মেয়ের মতই সমস্ত দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায় কোয়েল মল্লিককেও। এবারেও তার কোন রকমের ব্যতিক্রম ঘটেনি। পুজোর কটা দিন কিন্তু মল্লিক বাড়িতে সংবাদমাধ্যমের আনাগোনা লেগেই থাকে।

এরকমই একদিন সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে বাবার প্রতি অভিযোগ নিয়ে এসেছেন কোয়েল। কিছুটা অভিমানের স্বরেই অভিনেত্রী জানিয়েছেন,“তার বাবা নাকি তাকে ভুলে গিয়েছে। আগে যতবারই পূজোর সময় কোয়েল বাড়িতে আসতো তখনই তার বাবা সবার আগে তার খোঁজ করতো। এখন নাতি হবার পর থেকে কোয়েলকে যেন ভুলে গিয়েছেন। আগে নাতির খোঁজ নেয় সে মেয়ে কি করছে কখন আসছে সেই সব তো কিছু চোখেই পড়ে না তার”।

তবে পাঠকদের উদ্দেশ্যে জানিয়ে রাখি পুরো ব্যাপারটাই কিন্তু অত্যন্ত মজার ছলে বলেছেন কোয়েল। আসলে যাই হয়ে যাক না কেন মেয়েরা কিন্তু বাবার কাছে অত্যন্ত আদরের থাকে। কোয়েল মল্লিক এবং রঞ্জিত মল্লিক এর মধ্যেও এর ব্যতিক্রম ঘটবে তা বলা যায় না। পুজোর কটা দিন একেবারে ঘরের মেয়ের মতন দেখা যায় কোয়েলকে।। পূজোর সমস্ত আয়োজন করা থেকে শুরু করে ভোগ পরিবেশন সমস্ত কাজেই অংশগ্রহণ করেন রঞ্জিত কন্যা। সত্যি কথা বলতে গেলে ১৯ বছর ধরে ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে যুক্ত থাকার পরেও কোয়েলকে ছুঁতে পারেনি কোন বিতর্ক । তাই বর্তমানে সন্তান জন্মের পরে বিগত কিছু সময় অভিনয় থেকে দূরে থাকার পরেও দর্শকদের মনে তার জন্য একটা আলাদা জায়গা তৈরি হয়ে গিয়েছে।

Back to top button