কোনোরকম টুল বা হাত লাগানো ছাড়াই এই সহজ দারুণ ঘরোয়া উপায়ে নিমেষেই পরিষ্কার করুন সিলিং ফ্যান

নিজস্ব প্রতিবেদন: সিলিং ফ্যান পরিষ্কার করা কিন্তু বেশ সমস্যার বিষয়। তাই বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই আজ-কাল করে এই কাজটিকে কিন্তু ফেলে রাখা হয়। সেটিও কিন্তু বেশ সমস্যার বিষয়। কারণ দিনের পর দিন এভাবে ফ্যান নোংরা অবস্থায় পড়ে থাকলে তাতে হাওয়া দেওয়ার সময় যেমন সমস্যা হয়, ঠিক তেমন ভাবেই দেখতে খুব খারাপ লাগে।

কিন্তু আজকে আমরা স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি আলোচনা করব আপনাদের সাথে যেভাবে আপনারা খুব সহজেই বাড়িতে থাকা সিলিং ফ্যান অল্প সময়ের মধ্যেই একেবারে সম্পূর্ণরূপে পরিষ্কার করে নিতে পারবেন।। তাহলে আর দেরি না করে আমাদের এই প্রতিবেদনটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

১) প্রথমেই ফ্যানের নিচে থাকা অংশে একটি বড়ো দেখে কাপড় কিংবা টাওয়াল পেতে নিন। যাতে ফ্যান পরিষ্কার করার পরে সেই নোংরা বিছানার উপর কিংবা মেঝের উপর ছড়িয়ে না পড়ে। এবারে আপনারা একটি জামা কাপড় রাখার হ্যাঙ্গার নিয়ে নিন। মনে রাখবেন হ্যাঙ্গার যত বড় হবে ফ্যান পরিষ্কার করতে কিন্তু ঠিক ততটাই সুবিধা হবে।

২) এবারে হ্যাঙ্গার এর উপরের অংশে একটি টাওয়াল বা মোটা কোন কাপড় নিয়ে ভালো করে তা দড়ি দিয়ে পেচিয়ে বেঁধে ফেলুন। হ্যাঙ্গার এর নিচের অংশটিতে একটি টাওয়াল বা কাপড় ঠিক একই রকম ভাবে কিন্তু খুব বেশি না পেঁচিয়ে বাঁধুন। দুটি তাওয়াল বা কাপড়ই কিন্তু এমন ভাবে ভাববেন যাতে হ্যাঙ্গারের মধ্যবর্তী অংশ ফ্যানের ব্লেডের মধ্যে ঢুকিয়ে তা সহজেই পরিষ্কার করা যেতে পারে।

৩) এবারে একটি লাঠির সাহায্যে হ্যাঙ্গার টিকে বেঁধে ফেলুন। খেয়াল করবেন আপনার হাত থেকে ফ্যানের যতটুকু দূরত্ব থাকবে লাঠিটি যেন ঠিক ততটাই লম্বা হয়। এভাবে খুব সহজেই কিন্তু আপনারা কোন রকম টুল বা চেয়ার ব্যবহার না করে মেঝেতে বা খাটের উপর দাঁড়িয়েই ফ্যান পরিষ্কার করে নিতে পারবেন। তার জন্য আপনাকে কাপড় লাগানো হ্যাঙ্গারটির মাঝ বরাবর অংশ ফ্যানের মধ্যে ঢুকিয়ে আস্তে আস্তে ময়লা বের করে নিয়ে আসতে হবে।

পারলে হ্যাঙ্গারের মধ্যে কাপড় লাগিয়ে সেটাকে হালকা জলে ভিজিয়ে নিতে পারেন তবে অবশ্যই কিন্তু আপনারা জল ভালো করে চিপিয়ে নেবেন যাতে জল ফ্যানের মধ্যে লেগে না যায়। আর হ্যাঁ যেহেতু ইলেকট্রিকের জিনিস পরিষ্কার করছেন, তাই অবশ্যই কিন্তু আপনারা ইলেকট্রিকের সুইচ বা ফ্যানের মেইন সুইচ এটি পরিষ্কার করার আগে বন্ধ করে নেবেন।

আজকের এই বিশেষ টিপস আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই আমাদের সঙ্গে শেয়ার করে নিতে ভুলবেন না। এই ধরনের আরো টিপস সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের অন্যান্য প্রতিবেদন গুলির উপর নজর রাখতে থাকুন।

Back to top button