খুব অল্প দামের মধ্যে আধুনিক ডিজাইনের সোনার কানের ঝুমকোর অসাধারণ ১৫টি কালেকশন দেখে নিন!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- সোনার গয়না নিয়ে কিন্তু প্রত্যেক মানুষের মধ্যেই এক প্রকার আলাদা আবেগ কাজ করে থাকে। এমন বহু মানুষ রয়েছেন যারা বিভিন্ন উৎসব অনুষ্ঠানে সোনার গয়নাই পড়তে পছন্দ করেন। তবে বর্তমান সময় কিন্তু এই সোনার গয়না ব্যবহার করা বেশ কঠিন হয়ে উঠেছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই হলুদ ধাতুর দাম এতটাই বৃদ্ধি পেয়ে গিয়েছে যে সাধারণ মানুষের পক্ষে আর প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে সোনা কেনা সম্ভব হচ্ছে না।

আজকাল বেশিরভাগ মানুষই কিন্তু বিকল্প ধাতুর খোজ চালাচ্ছেন। তবে সোনার মতো নিদারুন ধাতুর বিকল্প নেই, এইকারনেই স্বাভাবিকভাবেই মানুষের মধ্যে কিন্তু সোনার তৈরি বিভিন্ন গয়না কেনার চাহিদা কমবেশি থেকেই থাকে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা তাই পূজো স্পেশাল কালেকশন হিসেবে আপনাদের সাথে শেয়ার করে নিতে চলেছে বিশেষ কয়েকটি সোনার কানের দুলের ডিজাইন।

  • পুজো স্পেশাল কিছু লেটেস্ট সোনার কানের দুলের ডিজাইন:

১) প্রতিবেদনের শুরুতেই আমরা যে সোনার কানের দুল বা ঝুমকোর ডিজাইন আপনাদের দেখাতে চলেছি সেটা কিন্তু একেবারেই ইউনিক। ঝুমকোটি খুব সুন্দর তিনতলা ধাপে তৈরি। ব্রাইডাল কালেকশন হিসেবে ও আপনারা কিন্তু এটাকে রাখতে পারেন। এই ঝুমকোটির ওজন ১৩.৭৫ গ্ৰাম। এটি তৈরি করতে গেলে আপনাদের মোটামুটি খরচ পড়বে ৬৮,৫৫০ টাকা।

২) দ্বিতীয় যে ডিজাইনটি আপনারা দেখতে চলেছেন সেটাও অনেকটা প্রথম ডিজাইনের মতোই তবে এর ওজন আর আকার প্রথম ডিজাইনটির থেকে অনেকটাই ছোট। ঝুমকোটির ওজন থাকছে ১০.৭৬০ গ্ৰাম এবং এর দাম পড়বে ৪৭ হাজার ৩৪৪ টাকা।

৩) এবার যে ঝুমকোটি আপনারা দেখছেন সেটা খুব সুন্দর উপরের অংশে একটা গোল মতন কাজ এবং নিচের অংশে একটা বড় ঝুমকো রয়েছে। ঝুমকোটির দাম থাকছে ৪০,৫৬৮ টাকা। কম বয়সী মেয়েদের কানে কিন্তু এই ঝুমকো দারুণ মানাবে। আপনারা অবশ্যই ট্রাই করে দেখতে পারেন।

৪) আপনারা যে কার্ডটি দেখছেন সেটার উপরের অংশ খুবই পাতলা এবং নিচের অংশে অনেকটা সরু সুতোর মতন করে ঝিল্লির মতন কাজ করা রয়েছে। নববিবাহিতা বধূদের কানে এটি দারুন মানাবে। আচ্ছা মোটামুটি ৩৪ হাজার ৪০০ টাকা।

৫) এবার আপনারা যে ঝুমকো দেখছেন সেটাও অনেকটা প্রথম আর দ্বিতীয় ডিজাইনের মতোই। অত্যন্ত সুন্দর আর ইউনিক ডিজাইনের এই তিন তলা ঝুমকোটির দাম পড়বে মোটামুটি ৪৭,৩৪৪ টাকা।

৬) যারা একটু হালকা ডিজাইনের মধ্যে কানের ঝুমকো খুজছেন তারা কিন্তু অবশ্যই এইটা ট্রাই করে দেখতে পারেন। খুব সুন্দর উপরের অংশে একটা পাতার মতন ডিজাইন এবং নিচে ঝুমকো থেকে একটা ঝুলের মতন বেরিয়েছে। ২৯ হাজার টাকার মধ্যে আপনারা এই ডিজাইনটি তৈরি করে নিতে পারবেন।

৭) যারা একটু ভারী দেখে ঝুমকো খুঁজছেন আর একটাই ঝুমকো খুঁজছেন তারা অবশ্যই এটা দেখুন। খুবই ইউনিক একটা ডিজাইন বানাতে খরচ পড়বে মোটামুটি ৪০ হাজার ৫৭০ টাকা।

৮) এবার যে একটা ঝুমকো আপনারা দেখতে পাচ্ছেন সেটা দুতলা। অর্থাৎ এই ঝুমকোটিতে তিনটের জায়গায় দুটো ধাপের মতন রয়েছে। প্রায় ৮ গ্রাম থেকে সামান্য বেশি এই কানের দুলের দাম পড়বে ৩৮,০১৬ টাকা। পুজো স্পেশালে বা উপহারের জন্য অবশ্যই আপনারা এটা একবার দেখতে পারেন।

৯) হুবহু আগের ডিজাইনের মতন এটাও একটা দোতলা ঝুমকো। তবে ওজন অন্যান্য কানের গুলির থেকে কিন্তু অনেকটাই হালকা। এই ডিজাইনটির দাম পড়ছে ৩২ হাজার ৭৩৬ টাকা। অবশ্যই আপনারা এটা একবার ট্রাই করতে পারেন।

১০) এটাও কিন্তু খুব একটা সাধারণ ডিজাইন এর আগেও বেশ কয়েকবার হয়তো গহনার দোকানে বা অনলাইনে আপনারা এই ডিজাইন দেখেছেন। মোটামুটি সাড়ে তিন গ্রাম ওজনের কাছাকাছি এই কানের তৈরি করতে গেলে আপনাদের খরচ পড়বে ১৪ হাজার টাকার সামান্য বেশি।

১১) যারা ঝুমকোর ধাপ পছন্দ করেন না তারা অবশ্যই কিন্তু এটা ট্রাই করতে পারেন। খুবই হালকা একটা ডিজাইন দাম পড়বে মাত্র ১২,৩৬৪ টাকা।

১২) যারা ঝুমকোর বাইরে অন্যান্য কানের দুল খুঁজে ঠিক তাদের জন্যই আজকের এই ডিজাইন। ঝুমকোর মতন দেখতে হলেও এটা কিন্তু অনেকটা চৌকো আকৃতির কানের। খুবই সুন্দর আর হালকা ডিজাইন তবে এতে যে সোনার উপরে কাজ করা রয়েছে তা নিঃসন্দেহে প্রশংসা করার মতন। এই কানের দুল তৈরি করতে বর্তমান সময়ের হিসেবে আপনাদের খরচ পড়বে ৬৮ হাজার ৫৫০ টাকা।

১৩) এবার আপনারা যে ডিজাইনটি দেখছেন সেটাকে কিন্তু সোনার ঝুমকো বলা যায় না। খুবই সাধারণ আর সুন্দর একটা ডিজাইন। মোটামুটি দশ গ্রামের থেকে সামান্য বেশি ওজনের এ কার্ডটি আপনারা পেয়ে যাবেন ৪৭ হাজার ৫৫০ টাকার মধ্যে।

১৪) এবার পাঠকদের যে কানের দেখাতে চলেছি সেটা খুব সুন্দর পাতা আর সুতোর মতন কাজ করা রয়েছে। মা বোনেদের কানে কিন্তু এই কানের দারুন মানাবে। এই কানেরটি তৈরি করতে গেলে আপনাদের খরচ পড়বে প্রায় ৩৮ হাজার ৫৫০ টাকা।

১৫) আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনের শেষে আমরা যে কানের নিয়ে আপনাদের আলোচনা করতে চলেছি সেটা তো অনেকটা ঘন্টার মতন বেকানো ডিজাইন এবং উপরের অংশে একটা লম্বা একটা ধরনের ডিজাইন করা রয়েছে। অসাধারণ একটি কালেকশন অবশ্যই আপনারা ট্রাই করতে পারেন। এই ডিজাইনটি তৈরি করতে গেলে আপনাদের মোটামুটি ৬৮ হাজার ৫৫০ টাকার কাছাকাছি খরচ করতে হবে।

সবশেষে পাঠকদের উদ্দেশ্যে জানিয়ে রাখি এগুলি শুধুমাত্র গয়নার ডিজাইন। অর্থাৎ এর মধ্যে যেকোন ডিজাইন পছন্দ করে আপনারা নিকটবর্তী দোকান বা শোরুম থেকে খুব সহজেই তা বানিয়ে নিতে পারবেন। এই গয়না গুলি কিন্তু যে কোন ভাল কারিগরের কাছেই বানিয়ে নেওয়া যাবে। নির্দিষ্ট কোন ঠিকানার প্রয়োজন নেই। যেহেতু প্রতিদিন সোনার দর করে তাই প্রতিবেদনে দেওয়া দাম পরিবর্তন হতে পারে যখন আপনি এটি বানাতে দেবেন বা কিনবেন!। গহনা বানাতে যাওয়ার আগে অবশ্যই কিন্তু আপনারা দৈনন্দিন সোনার দর যাচাই করে নেবেন এবং হলমার্ক দেখে নেবেন। নয়তো পরে সমস্যায় পড়তে পারেন।

Back to top button