প্রতিদিন টবেতে থাকা গাঁদা গাছের গোড়ায় দিন এই একটি ঘরোয়া উপাদান, অল্পদিনেই ছোট্ট গাছে ভরবে কুঁড়ি

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমাদের মধ্যে এমন বহু মানুষ রয়েছে যারা বাড়ির ছাদে বা বাড়ির বাগানের মধ্যে ছোট্ট একটা নার্সারি গড়ে তুলতে চাই । কারণ প্রতিনিয়ত বাড়তে থাকা এই মূল্যবৃদ্ধির বাজারেও রেহাই পায়নি চারা গাছের দাম । প্রতিনিয়ত বাড়ছে সমস্ত ছোট ছোট চারা গাছের মূল্য । তাই অনেকেই বাধ্য হয়ে নিজের বাড়ির মধ্যেই ছোটখাটো একটা বাগানবাড়ি তৈরি করার ইচ্ছে গুলোকে বাস্তবতার রূপ দিতে চাইছেন ।

বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে একটি বাগান পরিচর্যা করা অত্যন্ত কঠিন । কিন্তু যদি আপনার কাছে থাকে সঠিক প্রয়োগ তাহলে কিন্তু সে কঠিন কাজটি অত্যন্ত সহজ এবং সরল হয়ে উঠবে। বর্তমানের এই শীতকালে সবথেকে বেশি গাঁদা ফুলের ব্যবহার আমরা দেখতে পাই আমাদের চারিপাশে। বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান বাড়ি থেকে শুরু করে আরো যাবতীয় কাজে ব্যবহৃত হয় গাঁদা ফুল। কিন্তু বাড়ির বাগানে গাঁদা ফুল কেন অতটা পরিমাণে সতেজ হয় না। সে বিষয়ে বহু মানুষ একাধিকবার প্রশ্ন করেছেন । জাগিয়ে তুলেছেন তাদের কৌতূহল।

আজকের প্রতিবেদনের মাধ্যমে আপনাদেরকে এমন একটি সারের কথা বলব যেটি প্রয়োগ করলে আপনার বাড়ির গাদাগাছ অত্যন্ত সতেজ এবং আকারে অত্যন্ত বড় হয়ে উঠবে। সপ্তাহখানেক আগে খোল যাকে ইংরেজি ভাষায় মাস্টার্ড কেক বলা হয়ে থাকে সেটিকে ভিজিয়ে রাখতে হবে মাথায় রাখতে হবে যদি আপনি এক ভাগ খোল নেন তাহলে চার ভাগ জলে সেটিকে ভিজিয়ে রাখতে হবে অর্থাৎ অনুপাত হবে 1: 4 । এই খোল ভেজানো জল যদি গাঁদা গাছের গড়াতে দেওয়া হয় তাহলে সেটি অত্যন্ত ফলদায়ক হয়ে ওঠে । প্রতিনিয়ত এই সার ব্যবহারের ফলে গাছ খুব অল্প সময়ে বেড়ে ওঠে তার পাশাপাশি ফুল হয়ে ওঠে সতেজ।

Back to top button