পুজোর শেষ হতেই ফের চড়া হলুদ ধাতুর দাম! জানেন ১০গ্রাম সোনার দাম বেড়ে হলো কত? রইলো আপডেট তালিকা

নিজস্ব প্রতিবেদন: সামনেই আসন্ন ধনতেরাস এবং দীপাবলীর মরসুম। পুজোর মরশুমে সোনার দাম কিন্তু প্রায় প্রতিদিনই বেড়ে গিয়েছিল। এমতাবস্থায় দীপাবলীর আগে আবারো ঊর্ধ্বমুখী হতে দেখা যাচ্ছে সোনার দাম। খুব শীঘ্রই শুরু হয়ে যাবে বিয়ের সিজন। তাই স্বাভাবিকভাবে কিন্তু নতুন করে এভাবে সোনার দাম বেড়ে যাওয়ায় রীতিমতো চিন্তার ভাঁজ হয়ে গিয়েছে মধ্যবিত্তদের কপালে। ভারতীয় বিভিন্ন অনুষ্ঠান যেমন পুজো-পার্বণ থেকে শুরু করে বিয়েবাড়িতে সোনার গয়না একটা আলাদাই জায়গা দখল করে থাকে।

দুর্গাপুজো দিয়ে বাঙালির বারো মাসের তেরো পার্বণের মূলত সূচনা হয়েছে । এর পরে আগামী উৎসব অনুষ্ঠানের জন্য সবাই কম বেশি সোনার দোকানে ভিড় জমাবেন। চলতি সপ্তাহের বুধবার আর বৃহস্পতিবার বেশ কিছুটা কমেছিল সোনার দাম। শুক্রবার থেকেই আবারো ঊর্ধ্বমুখী হয়ে উঠেছে সোনা। এমতাবস্থায় রীতিমতন বিয়ের সিজন শুরুর আগে চিন্তায় পড়ে গিয়েছেন স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা। করোনার সময় বিশ্ব অর্থনীতিতে মুদ্রাস্ফীতির জন্য আকাশছোঁয়া হয়েছিল সোনার দাম। সেই সময় সোনার দর পৌছে গিয়েছিল ৫৬ হাজারের ঘরে যা এখনো পর্যন্ত রেকর্ড দাম বলে মনে করে থাকেন ব্যবসায়ীরা।

আসুন এবার এক নজরে সাম্প্রতিক সোনার দরের উপরে চোখ রাখা যাক।

সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে ২২ ক্যারেট এবং ২৪ ক্যারেট উভয়েরই দাম বেড়েছে। তবে অন্যদিকে কিন্তু রুপোর দাম অনেকটাই কমে গিয়েছে। গতকাল অর্থাৎ শুক্রবার ২২ ক্যারেট হলমার্ক সোনার ১০ গ্রামের মূল্য ছিল ৪৬,৭৫০ টাকা। পাশাপাশি শুক্রবার ২৪ ক্যারেট পাকা সোনার ১০ গ্রামের মূল্য হয়েছে ৫১,০০০ টাকা। সোনার দাম বাড়লেও এদিন রুপোর দাম কিছুটা নিচের দিকে। শুক্রবার প্রতি কেজি রুপোর মূল্য হয়েছে ৫৭.৩০০ টাকা। তবে এই সমস্ত কিছুর মধ্যে একটাই স্বস্তির ব্যাপার যে ২২ ক্যারেট সোনার বর্তমান মূল্য রেকর্ড দরের (৫৬,২০০ টাকা) থেকে ৯,৪৫০ টাকা কম ।

তবে বিয়ের সিজন শুরু হওয়ার আগে যদি সোনার দাম আরো নিচের দিকে না যায় সেক্ষেত্রে কিন্তু চরম ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারেন ব্যবসায়ীরা। কারণ এমনিতেই বিগত বছর দুই সময় লকডাউনের কারণে মানুষের পকেটে অর্থের অভাব দেখা দিয়েছে। এভাবে যদি সোনার দাম বাড়তে থাকে তাহলে কিন্তু এই পরিস্থিতিতে আর কোন মতেই সাধারণ মানুষের পক্ষে সোনা কেনা সম্ভব হবে না।

Back to top button