নিউজবিনোদন ও লাইফ স্টাইলভিডিও

“ভগবান কে গালাগালি দিলেই আমার সব ঠিক হয়ে যায়!” – কেমন আছেন জিজ্ঞেস করতেই বললেন রানাঘাটের রানু মন্ডল! মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- ‘যখনই আমার কষ্ট হয় তখনই আমি ভগবানকে গালাগালি দিই’ । আর তাতেই মুহূর্তের মধ্যে কষ্ট কমে যায় ।কারণ আমরা প্রত্যেকে ভগবানের চাকর ঠিক এমনটা মন্তব্য করলেন বিখ্যাত রানু মন্ডল । আত্মঅহংকার কেড়ে নিয়েছে তার জীবনের সবথেকে দামি মুহূর্তকে । হঠাৎ করেই গানের জগতে আত্মপ্রকাশ ঘটে এই মহিলার । চারিদিকে তখন সবার মুখে একটাই নাম । পাড়ার ব্যান্ডেল থেকে শুরু করে জন্মদিনের পার্টিতে বাজছে শুধুমাত্র তার গাওয়া গান ।

অর্থাৎ জনপ্রিয়তার নিরিখে রাতারাতি তুঙ্গে পৌঁছে যাওয়া এই মানুষটির হঠাৎ করে আবার হারিয়ে গেল সমাজের অন্ধকারে । তার একটাই কারণ সেটা হল তার আত্মহংকার ইতিমধ্যে আপনারা প্রত্যেকে বুঝতে পেরেছেন যে আমি রানাঘাটে স্টেশন চত্বরে ভিক্ষা করা রানু মন্ডল এ কথা বলতে চলেছি। ২০১৯ সালে প্রতিদিনকার মত সেই স্টেশনে লতা মঙ্গেশকরের গাওয়া এক পেয়ার কা নাগমা হে গানটি তিনি গিয়েছিলেন সকলের উদ্দেশ্যে ।

কিন্তু সেখানে ভগবানের দূত হিসেবে উপস্থিত হয় অতীন্দ্র বলে এক পথযাত্রী ।তিনি তার মোবাইলের মাধ্যমে সমস্ত মুহূর্তকে ক্যামেরাবন্দি করে এবং পরবর্তী ক্ষেত্রে শেয়ার করে সোশ্যাল মিডিয়াতে হঠাৎ করে মানুষের মনে এত টাই পছন্দ হয়েছে সেই গানটি যে মুহূর্তের মধ্যে সেই ভিডিওটি জনপ্রিয়তা বা ভাইরাল হয়ে যায় । যার ফলে লাইভ লাইটের কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসে রানাঘাট স্টেশন চত্বরে গান করা সেই রানু মন্ডল। রাতারাতি তিনি এতটাই জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন যে মুহূর্তের মধ্যে সেই খবর পৌঁছে গিয়েছিল গোটা বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে ।

এবং সে বলিউড ইন্ডাস্ট্রি থেকে তাকে ডাক পাঠানো হয় গান রেকর্ড করার জন্য । বিভিন্ন রিয়েলিটি শো ঝলমলে আলোতে রীতিমতো জীবন আলোকিত হয়ে উঠেছিল রানু মন্ডল এর । সেই মুহূর্তে ট্রেনিংয়ে তখন রানু মন্ডল । কিন্তু হঠাৎ করে কি এমন হলো যার ফলে ফিরে যেতে হলে তাকে সেই পুরনো ভাঙাচোরা বাড়িতে ।জানা যাচ্ছে যে তার আত্ম অহংকার এবং তার অনুরাগীদের সাথে দুর্ব্যবহার তাকে আবার ফিরিয়ে দিয়েছে তার পুরনো জায়গাতে ।

ভগবান তাকে সুযোগ দিলো সেই সুযোগের সদ্ব্যবহার তিনি করতে পারেননি। এখন এই লকডাউনে আরো করুণ অবস্থা হয়েছে রানু মন্ডল এর। রানাঘাট স্টেশন চত্বরে একটি চার্চের পাশে ভাঙাচোরা বাড়িতে একাই থাকেন রানু মন্ডল। তার এতটাই করুন অবস্থা যে আগেকার পুরনো বাসি ভাত ফুটিয়ে তাকে খেতে হয় । সে ব্যাপারে সাংবাদিকরা তার মেয়ের কথা জিজ্ঞেস করলে তিনি আক্ষেপ এর সাথে বলেন যে সুখ তার জীবন থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে ।

তার সাথে সাথে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে তার আপন জনেরা । যদি এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন যে তার যখনই কষ্ট হয় তখন তিনি ভগবানকে গালাগালি করেন তারপর তার নাকি তার কষ্ট সব দূর হয়ে যায় ঠিক এই পদ্ধতিতে তিনি তার কষ্ট দিনের-পর-দিন লুকিয়ে রেখে চলেছে তবে এবারে পুজাতে রানু মন্ডল এর হাতে অনেকগুলো অনুষ্ঠান রয়েছে বলে জানা যাচ্ছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button