ফের নেট দুনিয়ায় ভাইরাল রানাঘাটের রানু মন্ডল! খালি গলায় গাইলেন অসাধারন গান! তুমুল ভাইরাল হল ভিডিও।

ফের নেট দুনিয়ায় ভাইরাল রানাঘাটের রানু মন্ডল! খালি গলায় গাইলেন অসাধারন গান! তুমুল ভাইরাল হল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এই ভারতবর্ষের এমন একটা মানুষ নেই যে রানু মন্ডল কে চেনে না । গত দু’বছর আগে রানাঘাট স্টেশন চত্বরে গান গাওয়া এবং ভিক্ষা করে জীবন যাপন করা রানাঘাটের রানু মন্ডল এর জীবন কীভাবে পাল্টে গেছিল সে ঘটনা আমরা প্রত্যেকে জানি । রানাঘাট স্টেশন চত্বর থেকে সোজা বলিউড ইন্ডাস্ট্রি একজন খ্যাতনামা গায়িকা তে পরিণত হয়েছিলেন এই রানু মন্ডল । এবং মূলত যার জন্য হয়েছিলেন তিনি হলেন একজন সমাজ সেবক ।যার নাম অতীন্দ্র প্রতিদিনকার মত হাজার হাজার পথযাত্রীদের মাঝে গান ধরেছিলেন রানু মন্ডল ।

কিন্তু সেদিন ছিল একটু আলাদা। সে যুবক তার মোবাইলে মাধ্যমে সেই মুহূর্তকে ক্যামেরাব-ন্দি করে এবং শেয়ার করে সোশ্যাল মিডিয়াতে যার ফলে ঝ-ড়ের গ-তিতে হঠাৎ করেই ভাইরাল হয়ে যায় রানু মন্ডল। তার কন্ঠস্বর এতটাই মধুর এবং হৃদয় ছোঁয়া যে বলিউডের বিখ্যাত গায়ক হিমেশ রেশমিয়া তাকে বলিউডে গান করার সুযোগ করে দেয় । অবশেষে হিমেশের সাথে একটি গান রেকর্ড করে রানু মন্ডল ।

সেই মুহূর্তের দখল করেছিল গোটা গানের বাজারকে । পুজোর মণ্ডপ থেকে শুরু করে পাড়ার অনুষ্ঠান যে কোন জায়গাতে শোনা যাচ্ছিল রানু মন্ডল এর তেরি মেরি গানটি । তবে ভাগ্যের নির্মম প-রিহাসে তিনি তাঁর সাফল্য ধরে রাখতে পারেননি । অনেকেই বলে রানু মন্ডল মাথা একটু বিকৃতি আছে। যার ফলে মাঝেমধ্যে অনুরাগীদের সাথে খারাপ ব্যবহার করে বসেন । তিনি কখনো কাউকে স্পর্শ করতে বারণ করে কখনো আবার ভুলভাল ইংরেজি বলে ।

সব মিলিয়ে রানু মন্ডল এর জনপ্রিয়তা ধীরে ধীরে কমতে থাকে এবং সেখানে জায়গা হয় তার যেখান থেকে যাত্রা শুরু হয়েছিল রানাঘাট স্টেশন চত্বর । তবে হঠাৎ করে ফের আরও একবার ভাইরাল হলো রানু মন্ডল । কমেডি স্টার নামে একটি শোতে রানু মন্ডল হাজির হন তার সুরেলা গলা নিয়ে। তিনি আসতেই দর্শকরা মাতোয়ারা হয়ে ওঠেন। সকলের অনুরোধে আবার তিনি গেয়ে শোনান তার বিখ্যাত গান “তেরি মেরি কাহানি”।

এমনকি গানটিকে একাউন্টে অসম্ভব সুন্দর প্রাকৃতিক দৃশ্যের সাথে নিজেকে দেখান তিনি। মাঝে তিনি গাইতে গাইতে দর্শকদের গাইতে বলেন, মাঝেমধ্যে কিছু সমস্যা থাকলেও তার গলায় দর্শক হয়ে যান মুগ্ধ। ভিডিওটি পো’স্ট করা হয়েছে এশি’য়া’নেট নামক ইউ’টিউব চ্যানেল থেকে। প্রায় পঁচিশ হাজারের মতো মানুষ ভিডিওটি লা’ইক করেছেন। কিন্তু দুঃ’খের সাথে পাঁচ হাজারের মতো মানুষ ভিডিওটি ডি’সলা’ইক করেছেন।


Leave a Reply

Your email address will not be published.