নিউজবিনোদন ও লাইফ স্টাইলভিডিও

“আমি জানি আমি একটা বড় ভুল করে ফেলেছি, এর জন্য আমাকে ক্ষমা করে দিন” – কিসের জন্য ক্ষমা চাইলেন অভিনেত্রী মধুমিতা সরকার! ব্যাপক ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- এবার বড়োসড়ো ভুল করলেন অভিনেত্রী মধুমিতা সরকার যদিও তিনি ভুল করার পর সবার সামনেই তার ভুল স্বীকার করেন । ধারাবাহিক জগতে জনপ্রিয় অভিনেত্রী ছিলেন এককালীন তিনি । বর্তমানে বড় পর্দায় অভিনয় করছেন । বোঝেনা সে বোঝেনা ধারাবাহিক এর মাধ্যমে অভিনয় জগতে পদার্পণ ঘটে । মানুষ তার আসল নাম এর তুলনায় এ রিল নামে বেশি চেনেন ।অর্থাৎ মানুষ তাকে পাখি নামেই চেনে । সেই মুহূর্তে অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত সাথে জুটি বেঁধে শুরু হয়েছিল বোঝেনা সে বোঝেনা ধারাবাহিক টি।

নিজেকে তিনি ধারাবাহিক বা ছোটপর্দার আবদ্ধ রাখতে পছন্দ করেন নি তাই হয়তো পাড়ি দিয়েছেন বড় পর্দাতে । ইতিমধ্যে তার দুটি ছবি প্রকাশিত পেয়েছে তার মধ্যে একটি ছবি ব্যাপক পরিমাণে জনপ্রিয়তা পেয়েছিল । সেখানে অর্জুনের সাথে তাকে অভিনয় করতে দেখা যায় ।এবং ছবিটির নাম হল লাভ আজ কাল পরশু ।পরবর্তী ক্ষেত্রে পারিবারিক একটি ছবিতে তিনি অভিনয় করেন । যার নাম চিনি । মা এবং মেয়ের সম্পর্ক নিয়ে তৈরি হয়েছে এই গল্পটি ।

আমরা জানি যে মধুমিতা সরকার অভিনয় জগতের পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও যথেষ্ট পরিমাণে সক্রিয় থাকে । সেটিই তার ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল উঁকি মারলো বুঝে যাবে । অভিনয় জগতের পাখি আর বাস্তব জীবনের মধুমিতা সরকারের মধ্যে আকাশ-পাতাল তফাৎ । শান্তশিষ্ট ভদ্র মেয়েটি এখন উষ্ণতা ছড়াচ্ছে প্রতিমুহূর্তে । এমনকি তরুণপ্রজন্মের বিভিন্ন ধরনের ছবি এবং ভিডিওর মাধ্যমে ।

তবে পুনরায় মধুমিতা সরকার জুটি বাঁধতে চলেছে অভিনেতা যশ দাশগুপ্তের সাথে কিন্তু এবার আসা যাক তার ভুল কাজ কর্মের কথা নিয়ে সম্প্রতি বেশ কিছুদিন আগে তিনি একটি ভিডিও শেয়ার করেছিলেন তার ইনস্টাগ্রামে । যেখানে দেখা যাচ্ছে তিনি গাড়ি চালাতে চালাতে ভিডিও করছেন। সেই ভিডিওতে তিনি বলছেন,‘আমি এখন গাড়ি চালাচ্ছি। আর একটা ভুল কাজ করছি। গাড়ি চালাতে চালাতে শুট করছি। এটুকু বলতে চাই, সাবধানে চালাচ্ছি। রাস্তা ফাঁকা আছে বলেই ক্যামেরাটা বের করলাম। আমার ফেভারিট রাস্তা।

এই ভিডিয়ো করছি বলে কিছু মনে করো না। একা একা গাড়ি চালাচ্ছি আর ভিডিয়ো করছি, এটা ঠিক নয়, আমি জানি। কিন্তু সামনে কিছু নেই, তাই এটা করছি। আমি শুধুমাত্র সুন্দর দৃশ্যগুলো তোমাদের সঙ্গে শেয়ার করতে চাইছিলাম।’ ক্যাপশনে স্পষ্ট ভাবে তিনি লিখেছেন, ‘ডু নট টেক ড্রাইভিং ফর গ্র্যান্টেড।’তিনি যে গাড়ি চালাতে এবং ঘুরে বেড়াতে ভালবাসেনি সে কথা আমরা প্রত্যেকে জানি। তার এই সাবধানতা অবলম্বন করা এবং মানুষকে সচেতন করা নিয়ে অনেকে অনেক প্রশ্ন তুলেছে আবার অনেকে কুর্নিশ ও জানিয়েছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button