নিউজবিনোদন ও লাইফ স্টাইলভিডিও

ডেলিভারির সময়ও ওটিতে নুসরাতের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন প্রেমিক যশ দাশগুপ্ত! তুমুল ভাইরাল হল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- যে ভাবনা চিন্তা করা হচ্ছিল সেটা এবার প্রকাশ্যে ঘটতে দেখা গেল । মানুষের মনে এমন টা সন্দেহ ছিল যে নুসরাত জাহানের সন্তানের বাবা হয়তো যশ দাশগুপ্ত । কিন্তু তিনি সংবাদমাধ্যমকে বলেছিলেন যে যশ দাশগুপ্ত সন্তানের বাবা নয় । অথচ এবার কঠিন সময় অনুষদের পাশে সব সময় থাকতে দেখা গেল সেই অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত কে । যার ফলে পুনরায় বেড়েছে উত্তেজনা এবং জল্পনা । সমস্ত জ-ল্পনার এবং অপেক্ষার অবসান হয়ে গেছে ইতিমধ্যে । ফুটফুটে পুত্রসন্তানের জন্ম দিয়েছেন নুসরাত জাহান ।

যাকে নিয়ে বি-তর্ক ছিল কয়েক মাস ধরে তুঙ্গে । সোশ্যাল মিডিয়াতে তাকে নিয়ে বি-তর্কের শেষ ছিল না । একাধিক কু-রুচিকর ম-ন্তব্য এবং হে-নস্তার শি-কার হতে হয়েছে নুসরাত জাহান কে । কিন্তু এবার পিতৃপরিচয় ছাড়াই জন্ম নিল নুসরাত জাহান এর ছোট পুত্র সন্তান । বেশ কিছুদিন আগে বৃষ্টি ভেজা কলকাতা রাস্তায় পার্ক স্ট্রিটের একটি রেস্তোরাঁতে একসাথে খাবার খেতে দেখা গিয়েছিল নুসরাত জাহান এবং যশ দাশগুপ্ত কে ।

এমনকি রেস্তোরাঁ থেকে বেরিয়ে গিয়ে নিজের সাবধানতার সাথে নুসরাত জাহানকে রাস্তা পার করে দিয়েছিলেন অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত । আলতো করে বেঁধে দিয়েছিলেন চুল সেই সমস্ত ঘটনা একটি বেসরকারি সংবাদ মাধ্যমে ফুটে উঠেছিল এবং পরবর্তী ক্ষেত্রে শেয়ার হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে । যার ফলে নেটিজেনদের একাংশ মতামত যেভাবে এই কঠিন সময়ে নুসরাত জাহানের পাশে যশ দাশগুপ্ত দাঁড়িয়েছে তাতে এমনটা অনুমান করা যেতেই পারে যে এই সন্তানের বাবা তিনি ।

যদিও তার এই সাহসিকতাকে এবং সহযোগী তাকে প্রশংসা করেছেন অনেকেই । এই ভিডিও ঘুরে পুনরায় বাড়ছে জ-ল্পনা । সম্প্রতি ইউটিউবে একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে যে নুসরাত জাহান কে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে অপারেশন থিয়েটারে । কিন্তু তার সাথে রয়েছে যশ দাশগুপ্ত । একদমই ঠিক শুনেছেন । সেই প্রথম দিন থেকে নুসরাত জাহান এর সাথে রয়েছে যশ দাশগুপ্ত । এবং এই কঠিন সময়ে তিনি পাশে থাকার পর সাধারণ মানুষের মনে এমন প্রশ্ন জাগছে তাহলে কি নুসরাত জাহানের সন্তানের বাবা যশ দাশগুপ্ত ? নইলে কেন এত যত্নশীল হচ্ছেন তিনি তার প্রতিকা । তার ভালো থাকার খবর প্রথম সংবাদমাধ্যমকে দিয়েছিল যশ দাশগুপ্ত ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button