নিউজপশ্চিমবঙ্গ

বেকার বা বিধবা ভাতা পেলে কি আবেদন করতে পারবেন লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের জন্য? জয়েন্ট একাউন্ট দিলে কি আসবে টাকা? রইল সমস্ত খুঁটিনাটি তথ্য।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আমরা জানি যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় রাজ্যে চালু হয়েছে লক্ষী ভান্ডার প্রকল্প এবং প্রকল্পের আওতায় সাধারণ মহিলারা ৫০০ টাকা এবং হাজার টাকা করে সরকারি অনুদান পাবেন । কিন্তু যে হারে রাজ্য থেকে সাড়া পাওয়া যাচ্ছে তাতে রীতিমতো চিন্তিত মুখ্যমন্ত্রী নিজেও ।কারণ এই ম-হা-মারীর প্রকল্পে জমায়েত এতটা পরিমাণ এর মোটেও ভালো না এমনটাই জানিয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।

তাই দুয়ারে সরকারকে আধিকারিকদের বিশেষ সর্তকতা অবলম্বন করতে বলা হয়েছে । লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন করার জন্য বেশ কিছু শর্ত জারি করা হয়েছে যেমন আপনাকে পশ্চিমবঙ্গে স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে তার পাশাপাশি সরকারি কর্মচারীরা হলে কিন্তু এই প্রকল্পের আওতায় আসতে পারবে না ।এবং অতি অবশ্যই আপনার স্বাস্থ্য সাথী কার্ড থাকা বাঞ্ছনীয় কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে তবুও আবেদন করার সময় দেখা যাচ্ছে ভুল ভ্রান্তির শিকার হচ্ছে মানুষেরা ।

বেশ কিছু প্রশ্ন সাধারণ মানুষের মধ্যে উঠে এসেছে এবং সেই প্রশ্নগুলির মধ্যে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ যে প্রশ্নটি হলো যে যে যদি কেউ বিধবা ভাতা ও বার্ধক্য ভাতার পেয়ে থাকে সরকারের থেকে তাহলে কি তারা লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন ? বা লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন করার পর কি সেই সমস্ত প্রকল্প গু-লি বন্ধ হয়ে যাবে এ ব্যাপারে থাকছে গভীর প্রশ্ন । সেই প্রশ্ন উত্তরের জন্য আজকের এই প্রতিবেদন।

লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন পত্র একদম শেষ পৃষ্ঠায় যদি আপনারা যান তাহলে দেখবেন বেশ কিছু শর্ত দেওয়া রয়েছে । শর্ত অনুসারে বলা হয়েছে যে অবশ্যই আপনাকে পশ্চিমবঙ্গে স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে । তার পাশাপাশি জানানো হয়েছে যে আপনি সরকারের থেকে কোনো রকম কোনো নিয়মিত পেনশন পান না । অর্থাৎ এখানে স্পষ্ট ভাষায় বলে দেয়া হয়েছে যদি আপনি সরকারি কর্মচারী হন

এবং অবসর নেওয়ার পর থেকে নিয়মিত পেনশন পান তাহলে কিন্তু আপনি আবেদন করতে পারবেন না । কিন্তু বিধবা ভাতা ও বার্ধক্য ভাতা কোনরকম সরকারি পেনশন নয় ।সেটি সরকারের প্রকল্পে একটি সুবিধা ।তাই যারা বিধবা ভাতা বা বার্ধক্য ভাতা পাচ্ছেন তারা অতি অবশ্যই লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button